‘৯৯ শতাংশ সরকারি তথ্য প্রকাশে কোনো সমস্যা নেই’

৯৯ শতাংশ সরকারি তথ্য প্রকাশে কোনো সমস্যা নেই বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনি বলেছেন, আমলাতন্ত্রের যে কত প্রয়োজন তা বলার অপেক্ষা রাখে না। তবে সব পর্যায়ে কর্মকর্তাদের উচিত মাঠ পর্যায়ে যোগাযোগ বাড়ানো। ইউএনও, ডিসিসহ সব মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তার উচিত স্থানীয় উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউপি চেয়ারম্যান, এমনকি মেম্বারদের মাঝে যোগাযোগ বাড়ানো।
আজ রাজধানীর আগারগাঁওয়ে পরিসংখ্যান ভবনে আয়োজিত ‘বিবিএস গ্লোসারি (কনসেপ্টস অ্যান্ড ডেফিনেশন)’ শীর্ষক গ্রন্থের প্রকাশনা  অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।
পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘তথ্য লুকানোর কিছু নেই। ৯৯ শতাংশ ক্ষেত্রে সরকারি তথ্য প্রকাশে কোনও সমস্যা নেই। শুধু রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তার কারণে ১ শতাংশ গোপনীয়তা রয়েছে। সেটির প্রতি গণমাধ্যম সম্মান দেখাবে অবশ্যই। আগামীতে হয়তো সেই ১ শতাংশও আর গোপন রাখার প্রয়োজন নাও হতে পারে।

সরকার অত্যন্ত স্বচ্ছ।’
তিনি আরও বলেন, কোনও তথ্য লুকাবেন না। আপনাদের জরিপে যদি কোনো ভয়ংকর কিছু আসে, সে ক্ষেত্রে মহাপরিচালক ও সচিবকে জানাবেন। তারা মনে করলে আমাকে জানাবেন। আমি মনে করলে সরকারপ্রধানকে জানাবো।

তিনি বলেন, সরকার বিবিএস-এর ওপর নির্ভরশীল। বিশেষ করে পরিকল্পনা প্রণয়নের ক্ষেত্রে মূল আকর আসে বিবিএস থেকে। এজন্য পরিসংখ্যান ব্যুরোর বিশুদ্ধতা দরকার। আমরা জনগণের পক্ষে কাজ করি। আমলাদের দক্ষতা বাড়াতে হবে। বেশি বেশি প্রশিক্ষণ দিতে হবে। পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব মোহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) মহাপরিচালক মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম। মূল প্রবদ্ধ উপস্থাপন করেন ন্যাশনাল স্ট্রাটেজি ফর ডেভেলপমেন্ট অব স্ট্যাটিসটিকস (এনএসডিএস) প্রকল্পের পরিচালক দিলদার হোসেন।

SHARE