স্কুল শিক্ষার্থী কে নির্যাতন ও মিথ্যা মামলা দেয়ার প্রতিবাদে বিচারকের গাড়ি চালকের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

 

শেরপুরে এক স্কুল ছাত্রকে নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শেরপুর জজ আদালতের বিচারকের গাড়ী চালক কর্তৃক নির্যাতিত হয় ওই শিক্ষার্থী। শনিবার দুপুরে শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার পশ্চিম সমশ্চুড়া বাজারে এলাকাবাসীর আয়োজনে এ মাবনবন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

স্থানীয়রা জানিয়েছে, সমশ্চুড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র আলমাছ গত ২২ জুলাই বুধবার সকালে নিজের চাষের সব্জি কাকরোল বিক্রি করতে ঝিনাইগাতী হলদিগ্রাম বাজারে যায়। এ সময় পূর্ব শত্রæতার জের ধরে ওই গ্রামের বাসিন্দা ও শেরপুর জজ আদালতের গাড়িচালক আব্দুল বাতেন কাকরোল বিক্রির টাকাকে তার ভাইয়ের দোকান থেকে চুরি হওয়া টাকা বলে দাবি করেন। এ সময় আলমাছকে বেধে বেধরক মারধোর করেন গাড়ি চালক আব্দুল বাতেন ও তার লোকজন। পরে আলমাছকে চোর হিসাবে পুলিশের হাতে তুলে দেন তারা।

এ ঘটনার প্রতিবাদেই মানববন্ধন করেছেন স্থানীয় অধিবাসীরা। তারা মিথ্যা অপবাদে স্কুল ছাত্র আলমাছকে মারধোর এবং পুলিশের দেয়ার জন্য গাড়ি চালক আব্দুল বাতেনের বিচার দাবি কারেন। তারা আব্দুল বাতেনকে এলাকার ত্রাস হিসাবে অভিহিত করে বলেন, সরকারি চাকরির সুবাদে তিনি এলাকার মানুষের উপর নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছেন।

মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন মুক্তিযোদ্ধা মোশারফ হোসেন। বক্তব্য রাখেন মতিউর রহমান, বাবুল মিয়া, শিক্ষক রেজাউল করিম, হাবিবুর রহমান, রবিউল ইসলাম প্রমুখ। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাজি আজাদ মিয়াও মানববন্ধনে উপস্থিত হয়ে একাত্মতা ঘোষণা করেন।