সাতক্ষীরায় স্বামী-স্ত্রী ও দুই সন্তানকে গলা কেটে হত্যা

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় একই পরিবারের চারজনকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। দুর্বৃত্তরা আজ ভোরে উপজেলার হেলাতলা গ্রামে ঘরে ঢুকে নৃশংস এ হত্যাকাণ্ড ঘটায়।

নিহতরা হলো- শাহিনুর রহমান, তার স্ত্রী সাবিনা খাতুন এবং তাদের দুই শিশু সন্তান সিয়াম ও তাছলিম। তবে দেড়মাস বয়সী একমাত্র কন্যা সন্তান মারিয়া বেঁচে আছে।

সরজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা গেছে, একতলা একটি বাড়ি।বাড়িটি গ্রিল দিয়ে ঘেরা। একটি ঘরে স্বামী, স্ত্রী ও দুই মাস বয়সের শিশু মারিয়া ছিল।পাশের ঘরে ছেলে সিয়াম (১০) ও মেয়ে তাছলিমা (৮) ঘুমিয়ে ছিল।তাদের পাশের ঘরে ছিল নিহত শাহিনুরের ভাই জাহানূর।

ধারণা করা হচ্ছে, দুর্বৃত্তরা রাতের যে কোন সময় ছাদের ওপর দিয়ে ঘরে ঢুকে স্বামী, স্ত্রী ও তাদের দুই শিশু সন্তানকে কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করে। নিহত শাহিনুর গলাকাটা অবস্থায় উপুড় হয়ে পড়ে ছিল খাটের ওপর। নিচে একইভাবে স্ত্রী সাবিনা খাতুনের লাশ পড়ে ছিল। পাশের ঘরে ছিল মেয়ে ও ছেলেটির গলাকাটা  লাশ।

ঘটনাটি গা শিউরে ওঠার মতো।

এলাকাবাসী বলছে, পাশের ঘরে নিহতের ভাই ছিল, চার জনকে গলা কেটে হত্যা করা হলো। এ সময় হত্যাকারীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তি হতে পারে। অথচ ভাই কিছুই জানলো না। অপর একটি সূত্র, বলছে প্রতিবেশীদের সঙ্গে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল এ পরিবারের।

এদিকে, সকালেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন জেলা পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান, সিআইডির পুলিশ সুপার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মির্জা সালাউদ্দিন ও কলারোয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হারান পাল। পুলিশ কয়েকটি বিষয়কে সামনে নিয়ে তদন্ত করছে।

SHARE