শ্রীবরদীতে যুবকের লাশ উদ্ধার

শেরপুরের শ্রীবরদীতে নিখোঁজের ৪দিন পর জলাশয় থেকে সোহেল ওরফে বাবু (৩২) নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ২৮ নভেম্বর শনিবার ভোরে শ্রীবরদী সদর ইউনিয়নের নয়ানী শ্রীবরদী গ্রামের হালিম চেয়ারম্যানের বাড়ি উত্তর-পশ্চিমে নিলাক্ষিয়া সড়কের পাশের জলাশয় থেকে এ লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত বাবু ওই এলাকার গোলাপ আলীর ছেলে। সে স্থানীয় জেইউবি ইটভাটার পাহারাদার।
নিহতের স্ত্রী ইয়াছমিন জানায়, তার স্বামী দীর্ঘদিন যাবত একই গ্রামে জেইউবি ইটভাটার পাহারাদার হিসেবে কাজ করে। গত ২৪ নভেম্বর মঙ্গলবার সকালে বাড়ি থেকে ইটভাটার উদ্দেশ্যে বের হয়ে যায়। রাতে বাড়ি ফিরে না আসায় তাকে খোঁজাখোজি করে না পেয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরী করা হয়। আজ শনিবার সকালে তার লাশ পাওয়া যায়। নিহত বাবুর সহকর্মী ওই ইটভাটার পাহাড়াদার সাইদুর রহমান জানায়, ওইদিন সন্ধ্যা ৭টার দিকে খাবার কথা বলে সে বাড়িতে যায়। আর ফিরে আসেনি। ওই ইটভাটার কয়লা শ্রমিক শফিকুল ইসলাম বলেন, বাবু সবার সাথে মিলেমিশে কাজ করতো। কারো সাথে তেমন কোনো বিরোধ ছিলনা। আজ সকালে জানতে পারি তার লাশ পানিতে পড়ে আছে। তবে এ ব্যাপারে নিহত বাবুর মা খোদেজা বেগম বলেন, আমার ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে। আমি এর বিচার চাই। পুলিশ জানায়, লাশের পরনে লুঙ্গি ও গায়ে জাম্পার ছিল। পানিতে থাকার কারণে লাশ অনেকটাই ফুলে গেছে। লাশে সুরতহাল সংগ্রহ করা হয়েছে। এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ রুহুল আমিন তালুকদার বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্যে জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছে। তবে ঘটনাটি রহস্যজনক। এ ব্যাপারে থানায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে। এ ঘটনায় এলাকায় চা ল্য সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন, শেরপুর জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন ও নালিতাবাড়ী সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর আলম।

SHARE