বন্যার পানিতে ডুবে মারা গেলো বন্যা বেগম নামে এক ছাত্রী, মারা গেছে আরেক কাঠমিস্ত্রি

 

বন্যার পানিতে গোছল করতে গিয়ে শেরপুরে এক স্কুল ছাত্রী ও কাঠমিস্ত্রির মৃত্যু ঘটেছে। বৃহস্পতিবার এই দুটি মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে গত কয়েকদিনে বন্যার পানিতে ডুকে ও সাপের কামড়ে মারা গেলেন ৪ জন।
নিহতরা হলেন, শেরপুর জেলা সদরের খাসপাড়ার জমশেদ আলীর মেয়ে বন্যা এবং শ্রীবরদী পৌর এলাকাধীন তাতিহাটি নয়াপাড়ার আবু শামার ছেলে আলী আকবর। পেশায় আকবর কাঠের কাজ করতেন। আর বন্যা ছিলেন চরশ্রীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী।

স্থানীয়দের বর্ণনা মতে, বন্যা তার বান্ধবীদের নিয়ে ভেলায় করে বৃহস্পতিবার বিকালে বানের পানিতে ঘুরতে বের হয়। এ সময় বান্ধবীরা সহ গোছল করতে নামলে তলিয়ে যায় বন্যা বেগম। পরে তার লাশ উদ্ধার করে স্থানীয়রা।
অপরদিকে শ্রীবরদীর মিরকি বিলে আসা বানের পানিতে কিশোর কাঠমিস্ত্রি আলী আকবর বন্ধুদের সাথে মিলে সাঁতার কাটতে যায়। এ সময় স্রোতের টানে তলিয়ে যায় আকবর।