ফাগুন হত্যা, বিচারের বাণী যেন নিভৃতে না কাঁদে

 

ধরনীর রীতিতেই বদলে গেছি আমি-আমরা। সত্যতার প্রকাশ বাস্তব জগতে আরেক বিভিষিকাময় স্বপ্ন। সত্য প্রকাশের জন্যই আজ তুমি পরপারে। আর কতজন, আর কত সত্য প্রকাশের সহায়ক, আর কত সত্য প্রকাশের তৃতীয় পুরুষ অন্যায়ের দাবানলে প্রাণ হারাবে ভাই।

শুনেছি কাক নাকি কাকের মাংস খায় না। আজতো দেখি খেয়েছে তাই। নিয়তি কি এতটাই নিষ্ঠুর! এমন নির্ভিক সত্য প্রকাশের একনিষ্ঠ অগ্রনায়ক, যার মর্মান্তিক হত্যার বিচার চাইছে মানুষ। তবে কি সত্য প্রকাশের সমাপ্তিই মৃত্যু। এর জ্বলন্ত উদাহরণ তরুণ সাংবাদিক ইহসান ইবনে রেজা ফাগুন, ফাগুন রেজা।

ওর কথা ভাবতে গিয়ে অশ্রুসিক্ত আমি আজ। আমি লাইসেন্সধারী কলমযোদ্ধা নই, তবু লিখছি প্রাণের আবেগে। আজ পত্র-পত্রিকায়, ফেসবুক সবজায়গাতেই চোখ রাখতেই ভেসে উঠে, ‘আমি নিহত সাংবাদিক ইহসান ইবনে রেজা ফাগুনের পিতা কাকন রেজা বলছি’। তিনি তার সন্তানের জন্য শুধু নয়, লিখে যাচ্ছেন অন্য সন্তানেরা যাতে রক্ষা পায় সেজন্য। তার প্রতিটি কলামেই প্রায় একই রকম লেখা। আর যেন কোন পিতার কাঁধে সন্তানের লাশ না উঠে। তরুণরা যেন রক্ষা পায়, সকল অনাচার থেকে। মাদক, টেন্ডার-চাঁদাবাজি সব কিছু থেকেই যেন তরুণরা দূরে থাকে। ফাগুন রেজাও দেখতো সেই স্বপ্ন, তার পিতা কাকন রেজাও দেখেন, দেখান তেমন স্বপ্নই।

ইহসান রেজা ফাগুনের এমন হত্যাকান্ডের প্রতিবাদ জানানোর ভাষা নেই। তবু আমরা চাই এমন সত্যনিষ্ঠ তরুণদের যেন অকালে চলে যেতে না হয়। সরকার, প্রশাসন যেন এদিকে নজর দেন। কিন্তু আজ পর্যন্ত আমাদের এমন চাওয়াতে তারা নির্বিকার। যেন তাদের কোন ভ্রুপেক্ষপ নেই এ ব্যাপারে। অথচ সমাজের মানুষের যদি নিরাপত্তা না থাকে সে সমাজ হয়ে উঠে কলংকিত। (সম্পাদিত)

লিখেছেন- মেহেদি হাসান রাজন