দিল্লিতে চলছে কারফিউ, ২৪ ঘন্টায় ভারতে সর্বোচ্চ সংক্রমণ

হাসপাতালগুলোতে ভয়াবহ এক চিত্র। অক্সিজেন সরবরাহ সঙ্কটের কারণে হাসপাতালগুলোর পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ হয়ে উঠেছে। অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পাদনের স্থানে একের পর এক যাচ্ছে মৃতদেহ। করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে কোনো কোনো রাজ্য থেকে টিকা সঙ্কটের কথা জানানো হচ্ছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ডাটা অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত কমপক্ষে ১২ কোটি ডোজ টিকা দেয়া হয়েছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন এনডিটিভি। টিকার মজুত পুরোপুরি শেষ হয়ে যাচ্ছে বলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি লিখেছেন অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জগমোহন রেড্ডি। এ অবস্থায় করোনা সঙ্কট নিয়ে আজ শনিবার ১১টি রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রীদের এক বৈঠক আহ্বান করেছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন। গত ৬ দিনের মধ্যে ভারতে মোট ১০ লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ পরিস্থিতি কর্তৃপক্ষকে ভাবিয়ে তুলেছে। ওদিকে এক টুইটে লাখো মানুষের সমাবেশস্থল কুম্ভমেলাকে প্রতীকীভাবে পালনের জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এই মেলায় লাখো তীর্থযাত্রীর সমাগম হয়। তারা সেখানে গঙ্গাস্নানের জন্য যান। কিন্তু করোনার যে প্রোটোকল তার কিছুই মানেন না তারা। এতে দেশজুড়ে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় সবচেয়ে বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মহারাষ্ট্র এবং দিল্লিতে। মহারাষ্ট্রে নতুন করে ৬৩,৭২৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন ২৪ ঘন্টায়। এর ফলে সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৩৭ লাখ স্পর্শ করেছে। দিল্লিতে আক্রান্তের সংখ্যা মুম্বইকে ছাড়িয়ে গেছে। করোনা মহামারির পর দিল্লিতে মোট কমপক্ষে ৮ লাখ মানুষকে করোনায় আক্রান্ত বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় সেখানে আক্রান্ত হয়েছেন ১৯,৪৮৬ জন।

SHARE