ঝিনাইগাতীতে আদালতের চিরস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে অসহায়ের জমি দখলের পায়তারা

শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে জমি সংক্রান্তের এক মোকদ্দমায় বিজ্ঞ আদালতের চিরস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্যেও আইন অমান্য করে এক অসহায়ের জমি দখলের পায়তারার অভিযোগ উঠেছে। । উপজেলার সদর ইউনিয়নের বন্দভাটপাড়া গ্রামের মৃত ইছব আলীর ছেলে হযরত আলী মৃত আজিজুর রহমানের ছেলে মো. শাহাজ উদ্দিন ফকিরের উপর এ নির্যাতন করে জমিটুকো গ্রাস করতে চায় । মামলার সুত্রে জানা যায়, বাদে চল্লিশ কাহনিয়া মৌজার সাবেক দাগ ৩১৪, হাল দাগ- ৬০৫ এর ৭ নং খতিয়ানভুক্ত ৮৬ শতাংশ জমি থেকে ইব্রাহিম ফকির বন্দভাটপাড়া গ্রামের মৃত ইছব আলীর ২ছেলে যথাক্রমে মো. ফজল হক ও হযরত আলীর কাছে যৌথভাবে ইজমালিক দলিল মুলে ৩০শতাংশ জমি গত ৩/৯/১৯৮৬ ইং তারিখে দলিল সম্পাদন এবং ২০/০৯/১৯৮৬ইং তারিখে রেজিষ্ট্রীমুলে বিক্রী করেন। যাহার দলিল নং-৩৩০৪।হযরত আলীর বড় ভাই ফজল হক ক্রয়সুত্রে ইজমালিক দলিলের ৩০ শতাংশ জমির ১৫শতাংশের ক্রয় সুত্রে মালিক। ফজল হকের পারিবারিক সমস্যায় টাকার প্রয়োজনে সে তা অংশের ১৫ শতাংশ জমি গত ১৯/০৪/২০১৯ইং তারিখে একই গ্রামের মৃত আজিজুর রহমানের ছেলে মো. শাহাজ উদ্দিন ফকিরের নিকট জমিতে রোপিত গাছ পালাসহ সাবকবলামুলে বিক্রী করেন। শাহাজ উদ্দিন ফকির জমি ক্রয় করার পর ওই জমির একটি অংশে ধান চাষ অন্য অংশটিতে মাছ চাষ করেন। গত ২/৮/২০১৯ইং তারিখে শাহাজ উদ্দিন ফকির উক্ত জমিতে কাজ করতে গেলে হযরত আলী ও তার পরিবারের লোকজন সন্ত্রাসী কায়দায় শাহাজ উদ্দিনের উপর হামলা চালায় এমনকি শাহাজ উদ্দিনের ক্রয়কৃত জমিতে প্রবেশে বাধা প্রদান করে। এসব ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গত ২০/৮/২০১৯ইং তারিখে শাহাজ উদ্দিন বাদী হয়ে হযরত আলী ও তার ২ছেলে খোরশেদ আলম ও আল আমিনকে বিবাদী করে ঝিনাইগাতী সহকারী জজ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। মহামান্য আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে উক্ত জমির

SHARE