চিকিৎসকদের ধারণাও ভুল

একই সঙ্গে ১০টি শিশুর জন্ম, যা সম্ভবত নতুন বিশ্ব রেকর্ড। দক্ষিণ আফ্রিকার বাসিন্দা গোসিয়াম থমারা সিথোল। তার পেট স্ক্যান করে চিকিৎসকরা জানতে পেরেছিলেন ওই নারীর গর্ভে ৮টি সন্তান রয়েছে। তবে শেষ পর্যন্ত পরপর ১০টি শিশু জন্ম নেওয়ায় চিকিৎসকরা রীতিমত অবাক হয়ে যান। তারা  ভাবতেও পারেননি যে তাদের ‘ডেকুপ্লেটস’ হবে। এক সঙ্গে ১০টি সন্তানের জন্ম দেওয়াকে ডেকুপ্লেটস বলে। ”৭টি ছেলে এবং ৩টি মেয়ে। আমি খুশি।

আমার এত ভালো লাগছে যে সেটা প্রকাশ করতে পারছি না”- সন্তান ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর গোসিয়ামের স্বামী তেবোহো সোতেতসি প্রিটোরিয়া নিউজকে এ কথা বলেন। এক সাথে বেশি সংখ্যক সন্তান গর্ভে এলে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই জটিলতা তৈরি হয়। প্রিটোরিয়া নিউজের সাথে কথা বলার সময় সিথোল বলেছিলেন যে তাকে গর্ভাবস্থার শুরুতে বেশ কঠিন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছিল। সামনে কী দিন আসতে যাচ্ছে, এমন দুশ্চিন্তা নিয়ে একের পর এক নির্ঘুম রাত কাটিয়েছেন তিনি। সুস্থ সন্তান জন্মের জন্য রাত জেগে প্রার্থনা করেছেন। “আমার গর্ভে এতোগুলো শিশুর জায়গা কিভাবে হবে? তারা কি বেঁচে থাকবে?” তিনি নিজেকে প্রশ্ন করতেন বারবার। অবশেষে ঘটে সেই অলৌকিক ঘটনা। মায়ের প্রার্থনায় সাড়া দিয়ে সিথোলের গর্ভে ১০ টি সুস্থ সন্তান পাঠিয়ে দেন ঈশ্বর। গর্ভধারণের ২৯ সপ্তাহের মধ্যে প্রিটোরিয়া শহরে সন্তান প্রসব করেন সিথোল। সন্তানদের  জন্মদানের পর মা সুস্থ আছেন বলে জানা গেছে। এর আগে ২০০৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রে একই সঙ্গে ৮টি শিশুর জন্ম দিয়ে এক নারী গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে নাম তুলেছিলেন। গত মাসে মালির ২৫ বছর বয়েসী হালিমা সিসি ৯টি বাচ্চার জন্ম দিয়েছিলেন- যারা মরক্কোর একটি ক্লিনিকে বেশ ভালো অবস্থায় আছে বলে জানা গেছে। গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস  জানিয়েছে ১০ সন্তানের জন্মদানের ঘটনাটি একটি বিশ্ব রেকর্ড কি-না, তা জানতে তারা মিসেস সিথোলের ঘটনাটি তদন্ত করছেন।

SHARE