চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত বেড়ে ১৩১৮, মৃত ৪৯

চট্টগ্রামে ৪৬২ জনের নমুনা পরীক্ষায় চিকিৎসকসহ আরো ৯০ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। মারা গেছেন ৫ জন। এ নিয়ে চট্টগ্রামে আক্রান্ত বেড়ে দাড়িয়েছে ১৩১৮ জনে। আর মৃত বেড়ে দাড়িয়েছে ৪৯ জনে।

চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি শুক্রবার সকালে এ তথ্য জানান। তিনি জানান, চট্টগ্রামের বিআইটিআইডি ল্যাবে ২৬৪ নমুনা পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয় বৃহস্পতিবার রাতে। এরমধ্যে করোনা পজিটিভ আসে চট্টগ্রামের ২০ জনের।

যার মধ্যে ১০ জন নগরের বাসিন্দা ও বাকি ১০ জনের মধ্যে সন্দ্বীপের ২ জন, হাটহাজারীর ৫ জন, সীতাকুন্ডের ১ জন ও রাউজানের ২ জন রয়েছেন।

এছাড়া দুইজন পুরনো রোগীর নমুনা ফের পজিটিভ পাওয়া গেছে।

একই সময়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ১২৯ জনের নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে ৭০ জনের করোনা হয়েছে। এরমধ্যে মহানগর এলাকার ৬৭ জন। বাকি ৩ জনের মধ্যে পটিয়া, সাতকানিয়া ও ফটিকছড়ি উপজেলার একজন করে রয়েছেন।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাবে ৬৯টি নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে কারও দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়নি। কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবেও চট্টগ্রামের কারও নমুনা পরীক্ষা করা হয়নি।

সিভিল সার্জনের তথ্য অনুযায়ী, করোনা শনাক্তদের মধ্যে চার চিকিৎসক রয়েছেন। এদের দুইজন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের। তাদের একজন ৪০ বছর বয়সী পুরুষ, অপরজন ২৯ বছর বয়সী গাইনি বিভাগের নারী। এছাড়া পাথরঘাটা এলাকার ৩২ বছর বয়সী এক চিকিৎসকও রয়েছেন। হাটহাজারীতেও ৩৪ বছর বয়সী একজন ডাক্তার আক্রান্ত হয়েছেন।

এছাড়া শনাক্তদের মধ্যে ৫ জন করোনা উপসর্গ নিয়ে আগে মারা গেছেন। এদের মধ্যে ৪৮ বছর বয়সী একজন চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। কোতোয়ালী এলাকায় মৃত ৫১ বছর বয়সী একজন পুরুষ, বায়েজিদ থানা এলাকায় মারা যাওয়া ৬৫ বছরের একজন বৃদ্ধ, ফিরিঙ্গিবাজার এলাকায় মৃত ৫০ বছর বয়সের একজন পুরুষ ও সাগরিকা এলাকায় মৃত ৪৫ বছর বয়সের একজনের করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে।

এ নিয়ে চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৩১৮ জনে। করোনায় মৃত বেড়ে দাড়িয়েছেন ৪৯ জনে। করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ২২ জন।

SHARE