ইতিহাস গড়ে ফাইনালে টটেনহ্যাম

চ্যাম্পিয়ন্স লীগে লুকাস মাউরার হ্যাটট্রিকে আয়াক্সের বিপক্ষে অবিস্মরণীয় জয় পেল টটেনহ্যাম হটস্পার। বুধবার নিজেদের মাঠ জোহান ক্রুইফ স্টেডিয়ামে ৩-২ গোলে জয় নিয়ে ইতিহাসে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লীগে ফাইনালে উঠে টটেনহ্যাম হটস্পার। সেমিফাইনালের প্রথম লেগে টটেনহ্যামের বিপক্ষে ১-০ গোলে জয় তুলে নিয়েছিল। জুভেন্টাস, রিয়াল মাদ্রিদের মতো দলকে হারিয়ে বিদায় করছে আয়াক্স। ঘরের মাঠে এববার টটেনহ্যামকেও বিদায় করে দিবে, এমনটাই হয়তো ভেবেছিল ফুটবলভক্তরা। কিন্তু বুধবার ফিরতি লেগে ২-০ গোলে পিছিয়ে গিয়েও দুর্দান্ত ভাবে খেলায় ফেরে টটেনহ্যাম। নিজেদের মাঠে ম্যাচের পঞ্চম মিনিটের মাথায় গোল করে আয়াক্সকে এগিয়ে নেন ম্যাথিস ডি লিট। ম্যাচের ৩৫তম মিনিটে দুসান টাডিচের পাস থেকে গোল করে ব্যবধান দ্বিগুন করেন হাকিম জিয়েচ।

এর পরই মাউরা ম্যাজিক। ম্যাচের ৫৫তম মিনিটে ডেলে আলি ও ৫৯ মিনিটে ভেল্টম্যানের পাস থেকে গোল করে টটেনহ্যামকে সমতায় ফেরান। আর ম্যাচের যোগকরা সময় (৯০+৬) ডেলে আলির পাস থেকে ম্যাচের শেষ ও জয়সূচক গোল করেন মাউরা।

গত দু’দশকে টটেনহ্যামই প্রথম দল যারা দুই গোল হজম করেও চ্যাম্পিয়ন্স লীগের সেমিফাইনাল ম্যাচ জিতেলো। শেষবার এমটা করে দেখাতে পেরেছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ১৯৯৯ সালে জোড়া গোলে পিছিয়ে থেকেও জুভেন্টাসের বিপক্ষে জয় পেয়েছিল রেড ডেভিলরা। এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লীগে ‘অলইংলিশ ফাইনাল’ দেখবে ফুটবলপ্রেমিরা। ফাইনালে লিভারপুলেকে পাচ্ছে টটেনহ্যাম হটস্পার।