অখিলেশকে কেজরিওয়ালের ফোন মোদিকে থামাও

নির্বাচনের ফল পরবর্তী কৌশল কি হবে! কিভাবে থামানো যায় বিজেপিকে! এসব নিয়ে আলোচনা করতে উত্তর প্রদেশের আলোচিত সমাজবাদী পার্টির প্রধান অখিলেশ যাদবকে ফোন করলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। মঙ্গলবার এ নিয়ে তাদের মধ্যে আলোচনা হয়। বুথফেরত জরিপে বলা হচ্ছে ভারতে লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট কমপক্ষে ৩০০ আসন পাবে। এ পূর্বাভাষকে ‘রাবিশ’ বলে আখ্যায়িত করেছে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি (আপ)। উল্টো তারা ঘোষণা দিয়েছে, কেন্দ্রে পরবর্তী সরকার গঠন করবে বিরোধীরা। তাই কৌশল কি হবে এ নিয়ে অখিলেশকে ফোন করেন কেজরিওয়াল। এ ছাড়া তারা দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়েও আলোচনা করেছেন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন জি নিউজ।

কেজরিওয়াল ও অখিলেশের মধ্যে ওই ফোনালাপ নিয়ে পরে সংবাদ সম্মেলন করেছেন আপ দলের এমপি সঞ্জয় সিং। তিনি বলেছেন, আপ দলের শীর্ষ অগ্রাধিকার হলো বিজেপিকে ক্ষমতায় যাওয়া থামাও। দু’দিন পরেই ফল ঘোষণা হবে। তার পরের কৌশল কি হবে তা নিয়ে আমরা আলোচনা করেছি। এক্ষেত্রে প্রথম অগ্রাধিকার হলো বিজেপি থামাও। নরেন্দ্র মোদি-অতিশ শাহ এবং সাম্প্রদায়িক শক্তিগুলোকে থামাও। আর এই ফোনকলটি ছিল সৌজন্য।

বুথফেরত বেশির ভাগ জরিপ বলছে, উত্তর প্রদেশে বেশির ভাগ আসনে বিজয়ী হতে পারে বিজেপি। এ নিয়ে সঞ্জয় সিং বলেন, বিজেপি নয়। ওই রাজ্যে ৮০টি আসনের মধ্যে কমপক্ষে ৬০টি আসন পাবে সমাজবাদী পার্টি-বহুজন সমাজপার্টি জোট। আমি মনে করি এই গাঁটবন্ধন ৬০টিরও বেশি আসন পাবে। সারাদেশ থেকে উৎখাত হবে বিজেপি।

এ সময় তিনি বুথফেরত জরিপের ফলকে রাবিশ বলে আখ্যায়িত করেন। বলেন, বুথফেরত জরিপ পুরোপুরি ভুল প্রমাণিত হবে, যেমনটা এর আগেও হয়েছে। বিরোধীরা কেন্দ্রে শক্তিশালী সরকার গঠন করবে।